ভারতীয় ঘোড়ার চালান আটক

সিলেট বিডি নিউজ
প্রকাশিত ৯, ফেব্রুয়ারি, ২০২১, মঙ্গলবার
ভারতীয় ঘোড়ার চালান আটক

তাহিরপুর (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি: সীমান্তের ওপার হতে চোরাচালানের মাধ্যমে নিয়ে আসা ভারতীয় একটি ঘোড়ার চালান আটক করেছেন সুনামগঞ্জের তাহিরপুর থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার কাউকান্দি-আমবাড়ি গ্রামের মধ্যবর্তী পিচলার বিল  হতে ওই চালানটি আটক করা হয়।
জানা গেছে, সুনামগঞ্জ-২৮ বর্ডার গার্ড ব্যাটালিয়ন বিজিবির তাহিরপুর উপজেলার চাঁনপুর ও লাউরগড় বিওপির বিজিবির দায়িত্বপূর্ণ বারেকটিলা এলাকার চোরাচালান রুট ব্যবহার করে  সীমান্তের ওপার ভারত হতে সোমবার ও মঙ্গলবার গভীর রাতে বিজিবির নজর এড়িয়ে একদল চোরাকারবারী ৭টি ভারতীয় ঘোড়ার চালান নিয়ে আসে।
এরপর উপজেলার ফকিরনগর গ্রামের মৃত শবদর আলীর ছেলে ভারতীয় বিড়ি চোরাচালান মামলার  পলাতক আসামী আব্দুল কুদ্দুছ ওরফে বিড়ি কুদ্দুছের তত্বাবধানে (তারই শশুড় বাড়ি) আমবাড়ি গ্রাম সংলগ্ন পিছলার বিল এলাকায় নজরধারী রেখে ঘোড়াগুলো রাখা হয় অন্যত্র বিক্রয়ের জন্য।
বিষয়টি আশে পাশের গ্রামে থাকা লোকজনের নজরে আসলে তারা থানার ওসিকে অবহিত করেন।
পরবর্তীতে থানার ওসির নির্দেশে থানা পুলিশ ও বাদাঘাট পুলিশ ফাঁড়ি সদস্যরা মঙ্গলবার ওই বিল এলাকা হতে তিনটি ভারতীয় ঘোড়া আটক করেন।
অভিযোগ রয়েছে,ভারতীয় বিড়ি চোরাচালান মামলার পলাতক আসামী আব্দুল কুদ্দুছ ওরফে বিড়ি কুদ্দুছ উপজেলার জামতলা বাজারে গত কয়েকবছর ধরে ভারতীয় বিড়ি ব্যবসার সুবাধে গত ৭ হতে ৮ মাস ধরে সীমান্তের চোরাকারবারীদের সাথে যোগসাজস করে ভারতীয় প্রতিটি ঘোড়ার বিপরীতে থানা পুলিশ, বিজিবি, বিভিন্ন পশুর হাটের ভুয়া রশীদ, সাংবাদিকদের ম্যানেজ করা, জনৈক জনপ্রতিনিধির কথা বলে প্রতিটি গরু ও ঘোড়ার বিপরীতে অনধিক তিন হতে সাড়ে তিন হাজার টাকা করে সেটেল বা বখরা আদায়ের মাধ্যমে আমবাড়ি এলাকার পিচলার বিল এলাকায় অবাধে ভারতীয় চোরাই ঘোড়া, গরু ব্যবসার প্রসার ঘটিয়েছে।,
উপজেলার বাদাঘাট, জামতলা, পাতারগাঁও, কাউকান্দি সহ বিভিন্ন গ্রামীন হাটে ও বিভিন্ন গ্রামের দোকানে দোকানে নিজস্ব লোক দিয়ে ভারতীয় বিড়ি সরবরাহ, এমনকি উপজেলার বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ীদের নিকট মদ ও গাঁজার চালান সরবরাহ করে আসছেন  নির্ঝঞ্ঝাটহীন ভাবে।
উপজেলার ফকিরনগর গ্রামের অভিযুক্ত আব্দুল কুদ্দুছের বক্তব্য জানতে তার ব্যাক্তিগত মুঠোফোনে মঙ্গলবার বিকেলে কল করা হলেও তিনি ভারতীয়  ঘোড়া ও গরু হতে বখরা আদায়ের অভিযোগ অস্বীকার করলেও নিজেকে ভারতীয় বিড়ি চোরাচালান মামলার পলাতক আসামী হিসাবে স্বীকার কওে বলেন এসব আটককৃত ঘোড়া অন্যদের।,
মঙ্গলবার বিকেলে থানার ওসি মো. আব্দুল লতিফ তরফদার  ঘোড়া আটকের তথ্য নিশ্চিত করে বলেন,আপাতত মালিকবিহিন অবস্থায় ঘোড়াগুলো আটক করা হয়েছে পরবর্তীতে যথাযত আইনি ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

 72 total views

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন
  • 2
    Shares
error: Content is protected !!