গলাচিপা থানায় মিথ্যা অভিযোগ ও টাকা আদায়ের কৌশল

সিলেট বিডি নিউজ
প্রকাশিত ২২, ফেব্রুয়ারি, ২০২১, সোমবার
গলাচিপা থানায় মিথ্যা অভিযোগ ও টাকা আদায়ের কৌশল

মোঃ মোস্তফা কামাল খাঁন পটুয়াখালী: পটুয়াখালী জেলার গলাচিপা থানার ডাকুয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের পশ্চিম পাড় ডাকুয়া গ্রামের নাম বিমলা রানী(৪৫) স্বামী যুগল চন্দ্র শীল ১৯ ফেব্রুয়ারি রাত আনুমানিক ১টার সময় তার বাড়িতে ডাকাতি হয়েছে এবং তার ঘরের স্বর্ন-অলংকার সহ নগদ ১৪০০০০(এক লক্ষ চল্লিশ হাজার টাকা নিয়ে যায়।বাদীকে মেরে গুরুতর আহত করে। গলাচিপা থানায় সাধারন ডায়েরী করেন।

২১ ফেব্রুয়ারি ঘটনার স্থানে গিয়ে জানা যায়, শুক্রবার রাত্রে ১.৩০ এর দিকে নন্দীনী রানী (পলাশী), পিতাঃযুগল চন্দ্র শীল,তার বাড়িতে ফুল সাউন্ড দিয়ে মিউজিক বক্স চালাচ্ছিলো,এলাকাবাসী ঘুমাতে পারছিলো না।পাশের বাসার মোঃসোহাগ(১৮) পিতাঃ মোঃ শাহজাহান মাঝি।সোহাগ একা পলাশী রানীকে বক্স বাজাতে নিষেধ করতে যায়,সোহাগের বাবা-মা তুলে গালি দেয় পলাশী এবং কথা কাটা-কাটি হওয়ার এক পর্যায়ে সোহাগকে বারি মারে।সে বাসায় চলে আসে তার বাবা-মাকে ডেকে নিয়ে যায়।সেখানে কথা কাটা-কাটির এক পর্যায়ে তা মিমাংসা হয়।পরের দিন সকালে নন্দীনী রানী(পলাশী) মা বিমলা রানী থানায় মিথ্যা সাধারন ডায়েরী করেন।

এলাকাবাসীর মুখে জানা যায়,নন্দীনি রানী (পলাশী) একজন ইয়াবা ব্যবসায়ী,এবং পটুয়াখালীর পতিতা পল্লীর যৌনকর্মী।শিশু পাচার ও ইয়াবা সহ ধরা খেয়ে ৩ মাস জেল খেটে বের হয়ে ১ সপ্তাহ পর এই ঘটনা ঘটিয়েছেন।২১-০২-২০২১ ইং তারিখ বিকালে সালিশি করতে বসলে গন্য মান্য লোকদের সামনে শাজাহান মাঝিকে কুপিয়ে মারার হুমকি দেন।

 112 total views

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন
  • 11
    Shares
error: Content is protected !!