বালাগঞ্জে লক্ষাধিক টাকার ফসল দিন-দুপুরে হরিলুট!!

সিলেট বিডি নিউজ
প্রকাশিত ৬, এপ্রিল, ২০২১, মঙ্গলবার
বালাগঞ্জে লক্ষাধিক টাকার ফসল দিন-দুপুরে হরিলুট!!

বালাগঞ্জ প্রতিনিধি: সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার পূর্বগৌরিপুর ইউনিয়নের নতুন সুনামপুর গ্রামের নজরুল ইসলাম ছাখন ও নুরুল ইসলামের যৌথ সমন্বয়ে উৎপাদিত পনেরো ধরনের সবজি মাশাআল্লাহ প্রদর্শনীতে উৎপাদন করা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার (৫ এপ্রিল) পূর্ব মনমালিন্যতার বশবর্তী হয়ে গ্রামের আব্দুল খালিকের নেতৃত্বে লক্ষাধিক টাকার সবজি দিন-দুপুরে হরিলুট করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
সরেজমিনে বুৃধবার দুপৃরে সাংবাদিক ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সহ অন্যান্যদের উপস্থিতিতে অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনাটির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। চাষী নুরুল বলেন, আমার গৃহপালিত দুইটা গরু বিক্রি করে যৌথভাবে এফসল গুলো উৎপাদন করেছি। ৭বিঘা জমিতে মিষ্টি কুমড়া চাষ করেছি। গতকাল আমি হাটে সবজি বিক্রি করছি। সেই সময় জানতে পারি, খালিকের সবজি নেওয়া দেখে অন্যান্যরা নিতে থাকে, এমনকি সব গুলো গাছ উপড়ে ফেলে দেয়। বিষয়টি ইউএনও, স্থানীয় চেয়ারম্যান, কৃষি অফিসার সহ সবাইকে অবগত করি। খালিকের সাথে মনমালিন্য থাকলেও এটা অনেক আগে শেষ হয়ে যায়। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, খবর পেয়ে ইউপি সদস্য জালাল উদ্দিন এসে খালিক, সাবুল গংদের বাড়ি থেকে দুই শতাধিক মিষ্টি কুমড়া উদ্ধার করেন। ঘরে আরও রয়েছে বলে আশংকা করা যাচ্ছে। সদস্য সূত্রে জানা যায়, সবাই নিচ্ছে দেখে আমিও নিয়েছি বলে দাবি করেন অভিযুক্ত খালিক। প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, একেকটা গাছ দেখে মনে হচ্ছে গাছকে মানুষরুপী জানোয়াররা ধর্ষন করেছে। দুঃখ জনক !

নজরুল ইসলাম বলেন, জমিতে আরও ৪ লক্ষ টাকার সবজি রয়েছে। দিন-দুপুরে এধরনের কর্মকান্ড হলে বাকি সবজি বিনষ্ট করবে না এর নিশ্চিয়তা নেই। সর্বোপরি প্রশাসনের সহযোগীতা কামনা করি।
পরিদর্শনে এসে ইউপি চেয়ারম্যান হিমাংশু রঞ্জন দাস বলেন, ন্যাক্কারজনক ঘটনার তীব্রনিন্দা প্রকাশ করছি। বিষয়টি মাসিক সভায় উপস্থাপন করে ক্ষয়ক্ষতির জন্য আগামীতে প্রণোদনা অগ্রাধিকারের আশ্বাস দেন তিনি।

এপ্রসঙ্গে ইউএনও দেবাংশু কুমার সিংহ বলেন, ভুক্তভোগীরা চাইলে স্থানীয় ভাবে বিষয়টি নিষ্পত্তি করতে পারেন।প্রশাসনের কাছে আসলে আমরা প্রয়োজনী ব্যবস্থা গ্রহণ করবো এবং আমি বিষয়টি অবগত হওয়ার পরপরই বালাগঞ্জ থানা পুলিশকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছি। এবং উপজেলা কৃষিবিদ বলেন, এই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্য কৃষি দপ্তর দুঃখ প্রকাশ করে দোষীদের আইনি আওতায় নেওয়ার অনুরোধ করছি এবং আগামীতে কোনধরনের প্রণোদনা আসলে তাঁদেরকে এর আওতায় আনার আশ্বাস দেন তিনি।
বালাগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ গাজী আতাউর রহমান বলেন, ঘটনাটি শুনার পর তদন্তের স্বার্থে তদন্ততদারককে পাঠিয়েছি। ভুক্তভোগীদের লিখিত অভিযোগ পেলে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 174 total views

শেয়ার করে ছড়িয়ে দিন
  • 38
    Shares
error: Content is protected !!